premer kobita bangla lekha

premer kobita bangla lekha


premer kobita bangla lekha,premer kobita in bengali font,premer kobita bangla photo,valobashar kobita in bengali,ভালবাসার কবিতা,লবাসার কবিতা সমগ্র,ভালবাসার কবিতা sms,বাবা মেয়ের ভালবাসার কবিতা,সুনীলের ভালবাসার কবিতা,


তুমি আছো – ফয়সাল হাবিব সানি


তুমি আছো – ফয়সাল হাবিব সানি  তোমাকে আমি আমার হৃদয় ভেবেছি 

 একবার তুমি সেখানে তাকিয়ে দেখো- 

 দেখবে অনাদিকাল থেকে শুধু তুমি পড়ে আছো, 

 আমি সেই `তুমিকে বুকে ভরে হাসতে হাসতে নির্বিঘ্নে বয়ে বেড়াচ্ছি আমার প্রেমের মতো…

 তুমি যেন আমার প্রেমের মতো গাঢ় আর বেদনার মতো প্রগাঢ়: হৃদয়ের মতো নিঃসীম প্রদাহ!

 একবার তুমি প্রেমকে বিশ্বাস করো-

 পাঠ করো এ হৃদয়ের প্রতিটা অক্ষর,

 শুনতে পাবে শুধু তোমার নাম-

 সেখানে তুমি পড়ে আছো:

 একবার অন্তত তুমি আমার হৃদয়ে তাকাও-

 সেখানে শুধু তুমি আর তুমি বসে আছো,

 একবার তুমি আমার ওই চোখের দিকে তাকাও-

 চোখ রেখে একবার তুমি মুখ ফুঁটে বলো, `ভালোবাসি না? 

 আমি জানি, বলতে যেয়ে তোমার ঠোঁট ভীষণ কেঁপে উঠবে! তুমি মুখ লুকোবে লজ্জায়:

 কারণ তোমার চোখ ততোক্ষণে আমার চোখের ভেতর ঢুকে গেছে!

 একবার শুধু স্পর্শ করো আমায় তোমার কোমল করতলে-

 দেখবে তুমি শিউরে উঠবে! শরীরজুড়ে ভীষণ কাঁপন উঠবে তোমার:

 মুহূর্তেই আমার থেকে দূরে ছিটকে পড়বে তুমি…

 কিন্তু ততোক্ষণে আমার বুক তোমায় বুকে টেনে নেবে প্রবল উৎসাহে-

 বলোতো, কোথায় যাবে তুমি?

 এই যে দেখছো হাঁড়, মাংস, চামড়া

 আর গভীরে দেখছো হৃৎপিণ্ড:

 সবকিছু বলেছে আমায়, দিয়েছে সাক্ষ্য-

 ওদের ভেতরও নাকি তুমি মিশে আছো!

 আমার পাঁজরের রক্ত ঝরতে ঝরতে বলেছে,

 সেখানেও নাকি তুমি খেলা করো, খেলতে খেলতে আমায় তুমুল পাগল করে তোলো-

 আরক্ত রক্তে তোমার এ উত্তেজনা আমায় কি রকম মাতাল করে তোলে!

 একবার শুধু তুমি `আমি হয়ে যাও-

 আমরা দুজন অভিন্ন হয়ে যাব চোখ থেকে চোখে, ঠোঁট থেকে ঠোঁটে, মুখ থেকে মুখে, হৃদয় থেকে হৃদয়ে, শরীর থেকে শরীরে, ভেতর থেকে ভেতরে- বৃন্ত থেকে দুজনে না হয় ফুটব সদ্য যৌবনপ্রাপ্ত একটি লাল গোলাপের মতো আমাদের হৃদয় থেকে পৃথিবীর সমস্ত হৃদয়ে ছড়িয়ে পড়বে অমৃত তৃষা…

 একবার শুধু আমার হৃদয়ে হাত দাও-

 সেখানে তোমার অস্তিত্ব শুয়ে থাকে, সেখানে তুমি পড়ে আছো:

 আমি অনাদিকাল থেকে সেখানে বিদীর্ণ দাহে প্রেমের মতো পুঁষেছি তোমাকে! 


রূপন্তিমা – মতিয়ার রহমান


রূপন্তিমা – মতিয়ার রহমান  রূপন্তিমা, আমি তোমাকে খুঁজে পাই,ফুলবাগানের প্রজাপতির মাঝে 

 হাসনাহেনা, গন্ধরাজ, শিউলি ফুলের রঙে

 মধ্যরাতের ঝিঝিপোকার ডাকে, ভোরের পাখির কোলাহলে ।

 আমি তোমাকে খুজে পাই মটরশুটির ক্ষেতে, চন্দনা নদীর তীরে ।

 দূর্বাঘাসের পাখনায়, ভিজে মেঘের দুপুরে।

 আমি তোমাকে খুঁজে পাই নিরহংকার পথে, নিরহংকার মনে।

 আলোকিত শাসনে, আমার ভবিষ্যতে

 আমি তোমাকে খুঁজে পাই শতাব্দীর নীল আকাশে, বাঁকা চাঁদে ।

 দিনের কমলা রোদে, বিলুপ্ত নগরীর পাশে ।

 আমি তোমাকে খুঁজে পাই মুক্তমঞ্চের শ্বাসরুদ্ধ স্লোগানে, ক্ষুধার্তদের পাণ্ডলিপিতে।

 প্রতিবাদি নারীর আক্রোসে, নতুন ভোরের আকাঙ্খাতে।

 আমি তোমাকে খুঁজে পাই বিস্তির্ণ উল্লাসে, স্বপ্নের ধ্বনিতে ।

 পৃথিবীর ক্রমমুক্তিতে, আমার নিস্তব্ধ অতীতে।

 আমি তোমাকে খুঁজে পাই ক্লান্তহীন নাবিকের গর্বে, রক্তক্লান্ত কাজের আহ্বানে।

 প্রতিশ্রুতি রক্ষার সাহসিকতায়, শান্তি সংঘের ধর্মে, নির্বাণে ।

 আমি তোমাকে খুজে পাই আমার উদ্যম অনুপ্রেরণায়,

 আমার দাঁড়িয়ে থাকা শ্রেষ্ঠতর বেলাভূমিতে।


munjatপ্রিয় পাঠকগণ। আসা করি আজকের কবিতা গুলো আপনাদের ভালো লেগেছে। যদি ভালো লেগে থাকে। অবশ্যই একটি লাইক দিবেন এবং বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন। ভালো থাকবেন সুস্থে থাকবেন। এবং সবাইকে ভালো রাখবেন।ধন্যবাদ।


NEXT PAGE


 

0% LikesVS
100% Dislikes