kobita bangla lekha

kobita Bangla lekha


bhalobasar kobita,শ্রেষ্ঠ প্রেমের কবিতা,রোমান্টিক প্রেমের কবিতা,সকালের প্রেমের কবিতা,প্রথম প্রেমের কবিতা,বাংলা প্রেমের কবিতা,রোমান্টিক কবিতা সমগ্র,kobita bangla lekha,


অনন্ত প্রেম – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর


অনন্ত প্রেম – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর  তোমারেই যেন ভালোবাসিয়াছি শত রূপে শতবার 

 জনমে জনমে যুগে যুগে অনিবার।

 চিরকাল ধরে মুগ্ধ হৃদয় গাঁথিয়াছে গীতহার–

 কত রূপ ধরে পরেছ গলায়, নিয়েছ সে উপহার

 জনমে জনমে যুগে যুগে অনিবার।

 যত শুনি সেই অতীত কাহিনী, প্রাচীন প্রেমের ব্যথা,

 অতি পুরাতন বিরহমিলন কথা,

 অসীম অতীতে চাহিতে চাহিতে দেখা দেয় অবশেষে

 কালের তিমিররজনী ভেদিয়া তোমারি মুরতি এসে

 চিরস্মৃতিময়ী ধ্রুবতারকার বেশে।

 আমরা দুজনে ভাসিয়া এসেছি যুগলপ্রেমের স্রোতে

 অনাদি কালের হৃদয়-উৎস হতে।

 আমরা দুজনে করিয়াছি খেলা কোটি প্রেমিকের মাঝে

 বিরহবিধুর নয়নসলিলে, মিলনমধুর লাজে–

 পুরাতন প্রেম নিত্যনূতন সাজে।

 আজি সেই চির-দিবসের প্রেম অবসান লভিয়াছে,

 রাশি রাশি হয়ে তোমার পায়ের কাছে।

 নিখিলের সুখ, নিখিলের দুখ, নিখিল প্রাণের প্রীতি,

 একটি প্রেমের মাঝারে মিশেছে সকল প্রেমের স্মৃতি–

 সকল কালের সকল কবির গীতি।


  আমার এ প্রেম নয় তো ভীরু – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর


 আমার এ প্রেম নয় তো ভীরু – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর  আমার এ প্রেম নয় তো ভীরু, 

 নয় তো হীনবল –

 শুধু কি এ ব্যাকুল হয়ে

 ফেলবে অশ্রুজল।

 মন্দমধুর সুখে শোভায়

 প্রেম কে কেন ঘুমে ডোবায়।

 তোমার সাথে জাগতে সে চায়

 আনন্দে পাগল।

 নাচ যখন ভীষণ সাজে

 তীব্র তালের আঘাত বাজে,

 পালায় ত্রাসে পালায় লাজে

 সন্দেহ বিহবল।

 সেই প্রচন্ড মনোহরে

 প্রেম যেন মোর বরণ করে,

 ক্ষুদ্র আশার স্বর্গ তাহার

 দিক সে রসাতল।


  আবার যখনই দেখা হবে – নির্মলেন্দু গুণ


 

 আবার যখনই দেখা হবে – নির্মলেন্দু গুণ  আবার যখনই দেখা হবে, আমি প্রথম সুযোগেই

 বলে দেব স্ট্রেটকাটঃ ভালোবাসি।

 এরকম সত্য-ভাষণে যদি কেঁপে ওঠে,

 অথবা ঠোঁটের কাছে উচ্চারিত শব্দ থেমে যায়,

 আমি নখাগ্রে দেখাবো প্রেম, ভালোবাসা, বক্ষ চিরে

 তোমার প্রতিমা। দেয়ালে টাঙ্গানো কোন প্রথাসিদ্ধ

 দেবীচিত্র নয়, রক্তের ফ্রেমে বাঁধা হৃদয়ের কাচে

 দেখবে নিজের মুখে ভালোবাসা ছায়া ফেলিয়াছে।

 এরকম উন্মোচনে যদি তুমি আনুরাগে মুর্ছা যেতে চাও

 মূর্ছা যাবে,জাগাবো না,নিজের শরীর দিয়ে কফিন বানাবো।

 ভালোবাসি বলে দেব স্ট্রেটকাট, আবার যখনই দেখা হবে।

পরস্পর – সংগৃহীত  আমায় তোমার কেমন লাগে, 

 আমি বিহীন লাগবে কেমন? 

 কাঁদবে ভেবে এই এতোটুক?

 এই এতোটুক চন্দ্রগ্রহণ?

 তন্দ্রাবিহীন একটুকু রাত,

 আমায় ভেবে শুন্য দুহাত

 কাঁপবে ভীষণ? কাঁদবে ভীষণ?

 আমি বিহীন কেমন লাগে?

 জানার ভীষণ ইচ্ছে জাগে,

 ভীষণ রকম। কিন্তু জানো,

 এই হিসেবে, বেহিসেবের সংখ্যা অনেক,

 আমার কেবল ইচ্ছে জাগে, জানতে ভীষণ,

 আমায় তোমার কেমন লাগে!

 কেমন লাগে একজনমের সকল ভাগে।

 তোমারও কি ইচ্ছে জাগে?

 তোমায় আমার কেমন লাগে।


munjatপ্রিয় পাঠকগণ। আসা করি।  আমাদের সকলের প্রিয়।  বাংলাভাষী। কবি গুরুদের এই কবিতা গুলো। আপনাদের ভালো লেগেছে। তাই আপনাদের কাছে আমার একটাই বিশেষ অনুরোধ। পাতাটাকে একটা লাইক দিবেন। এবং বন্ধুদের সঙ্গে পাতাটা শেয়ার করে। তাদের কেও পড়ার সুযোগ করে দিবেন। ভালো থাকবেন এবং সবাইকে ভালো রাখবেন। ধন্যবাদ।


NEXT PAGE


 

50% LikesVS
50% Dislikes