bangla funny jokes koutuk

Bangla funny jokes koutuk


Bangla funny jokes koutuk, Bengali funny jokes HD images, Bengali funny romantic jokes, Bengali funny dirty jokes, Bengali funny jokes poem, Bangla funny jokes photo 20২০, Bangla funny jokes read,


 

 ১. কল্পনা করা বন্ধ করব

 

 

ইন্টারভিউ বোর্ডে সর্দারজিকে প্রশ্ন করলেন এক প্রশ্নকর্তা, ‘কল্পনা করো তো, তুমি একটা ২০ তলা বাড়ির ১৫ তলায় আছ। এমন সময় ভীষণ আগুন লেগে গেল। সবাই ছোটাছুটি শুরু করল। তুমি কী করবে?’

 

সর্দারজি: আমি কল্পনা করা বন্ধ করব!

 

 

২. বিবাহিত পুরুষেরই শুধু চাকরি

 

 

কোম্পানির বড় কর্তার বন্ধু : কিন্তু এ তোমার কি যুক্তি ? অবিবাহিত লোক না নিয়ে তুমি শুধু বিবাহিত কর্মচারী রাখতে চাও কেন?

 

বড় কর্তা: বুঝলেন বিবাহিত লোক গুলো বাড়িতে আট প্রহর বকুনি খেয়ে খেয়ে এমন অভ্যস্ত হয়ে গেছে যে , আমি বকলেও তারা আর কিছু মনে করে না । চাকরি ছেড়ে দেবার ভয়ও দেখায় না।

 

 

 

 

 

৩. ৩০লক্ষ মানুষের নাম

 

 

দুইজন লোক গেল চাকরির ইন্টারভিউ দিতে…

প্রথমজন আগেই প্রশ্নকর্তাকে ঘুষ দিয়ে রাখছিলো!!

 

প্রশ্নকর্তা প্রথমজনকে প্রশ্ন করলেনঃ তুই ডগ বানান কর।

 

প্রথম জনঃ DOG.

 

প্রশ্নকর্তাঃ সাবাস।

 

এরপর তিনি দ্বিতীয় জনকে বললেনঃ তুই হিপোপটমাস বানান কর।

 

দ্বিতীয় জনঃ এটা তো পারি না।

 

প্রশ্নকর্তাঃ তুই পারিস নাই তুই বাদ। ওর চাকরি হয়া গেছে।

 

দ্বিতীয় জনঃ মানি না। আমারে কঠিনটা ধরছেন ওরে সহজটা ধরছেন।

 

প্রশ্নকর্তাঃ আচ্ছা ঠিক আছে আবার। এই তুই বল ১৯৭১ সালে বাংলাদেশে কতজন মারা গেছে?

 

প্রথম জনঃ ৩০ লক্ষ।

 

 

প্রশ্নকর্তাঃ সাবাস।…..

 

এরপর দ্বিতীয় জনকে বললোঃ তুই

ওই ৩০লক্ষ মানুষের নাম বল।

 

দ্বিতীয় জন বেহুশ!!

 

 

 

৪. মহান ব্যক্তির নাম

 

 

 একজন চাকরিপ্রার্থী ইন্টারভিউ দিচ্ছে : ভারতের তিন জন মহান ব্যক্তির নাম বলুন।

 

উত্তর: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, মাদার টেরিজা এবং আপনি, মানে আপনার নামটা যেন কী?

 

 

৫. এক থাপ্পড়

 

 

জেলার: আপনি জেলারের পদে কাজ করতে পারবেন?

 

প্রার্থী: অবশ্যই পারব স্যার।

 

জেলার: বলুন তো কয়েদীরা ঝামেলা করলে কি করবেন?

 

প্রার্থী: এক ধমক দিয়ে থামিয়ে দেব স্যার।

 

জেলার: বাহ বেশ! যদি বেশি বেয়াদবী করে তাহলে?

 

প্রার্থী: এক থাপ্পড় মেরে ওদেরকে জেল থেকে বের করে দেবো স্যার!

 

 

 

৬. বাকি দুজনকে বরখাস্ত করব

 

 

কেরানী: ম্যানেজারকে বলল আমি এত দিন ধরে তিনজন লোকের কাজ এক জনে করেছি । আমার মাইনে বাড়াতে হবে

 

ম্যানেজার: মাইনে এখন বাড়ানো অসম্ভব। কিন্তু তুমি বাকি দুজনের নাম বল তাদের এক্ষুনি বরখাস্ত করব।

 

 

 

 

 

৭. অমন কথা সবাই বলে

 

 

ম্যানেজার তার নতুন সেক্রেটারীকে বললো, আমি এখন এক জরুরী মিটিং-এ ব্যস্ত থাকবো । কোন ফোন এলে পরে করতে বলবে ।

 

সেক্রেটারীঃ জরুরী কথা থাকলে?

 

ম্যানেজারঃ যে কথাই হোক তুমি স্রেফ না বলে দেবে। বলবে অমন কথা সবাই বলে । যা হোক আমি এখন কথা বলতে চাই না । হ্যাঁ মনে থাকে যেন । বলবে অমন কথা সবাই বলে।

 

ম্যানেজার যেতেই সেক্রেটারী ফোন রিসিভ করতে লাগলো এবং না করে দিলো কিন্তু ওপাশের মহিলা জরুরী ভীষন জরুরী কথা ইত্যাদি বলে কিন্তু সেক্রেটারীকে গলাতে না পেরে বলেই ফেললো আমি তার স্ত্রী কথা বলছি… সেক্রেটারী অধৈর্য কন্ঠে বললো, অমন কথা সবাই বলে…

 

 

 

৮. জেলে অবকাশ

 

 

এক দরিদ্র কেরানিকে তাঁর বস জিজ্ঞেস করলেন, এবারের গ্রীষ্মের অবকাশটা কোথায় কাটাবে?

 

দীর্ঘশ্বাস ফেলে কেরানি বললেনঃ ছেলে যাচ্ছে ইতালির সমুদ্রসৈকতে, স্ত্রী যাচ্ছে ভূমধ্যসাগরে জাহাজ-ভ্রমণে।

 

তুমি কোথাও যাবে না? -সম্ভবত জেলে।

 


Leave a Comment